অনলাইন ডেস্ক : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে করোনায় আটজন ও উপসর্গে আটজন মারা গেছেন।

বুধবার (২৩ জুন) রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রোববার (২২ জুন) সকাল ৮টা থেকে শনিবার (২৩ জুন) সকাল ৮টা পর্যন্ত রামেকের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ১৬ জন মারা গেছেন। মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর আটজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনজন, নাটোরের দুজন, নওগাঁর দুজন ও ঝিনাইদহে একজন।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১৬ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ তিনজন মারা গেছেন হাসপাতালের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে।

হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) তিনজন, এক নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন, ৩, ২২ ও ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে মারা গেছেন।

করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে একই দিনে হাসপাতালে মারা গেছেন আরও সাতজন। এদের মধ্যে তিনজন রাজশাহীর, দুজন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এবং একজন করে নাটোর ও ঝিনাইদহ জেলার বাসিন্দা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মরদেহ দাফনের পরামর্শ দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে ফের শয্যা বাড়ানো হয়েছে রামেক হাসপাতালে। ৩০৯টি থেকে শয্যা বাড়িয়ে ৩৫৭-তে উন্নীত করা হয়েছে। করোনা ইউনিটে শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ৪১০ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১৯ জন।

করোনা নিয়ে এ পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৮১ জন। এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৭৪ জন। করোনা ধরা পড়েনি হাসপাতালে ভর্তি ৫৫ জনের নমুনায়। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৬০ জন। এই এক দিনে হাসাপাতাল ছেড়েছেন ৪২ জন।

এদিকে মঙ্গলবার (২২ জুন) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল ল্যাবে ১৮৮ জনের এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাবে ৩৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৩৫ ও রামেক ল্যাবে ১৪১ জনের নুমানায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

পরীক্ষার অনুপাতে রাজশাহীতে সবচেয়ে বেশি ৩৩ দশমিক ০৪ শতাংশ নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই দিনে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২৫ দশমিক ৭৭ শতাংশ নমুনায় করোনা ধরা পড়েছে।