নিজস্ব সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলে চলতি জুলাই মাসের ১৩ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১০৩ মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও এ সময় ২ হজার ৯৯৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও জেলায় মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকাল পর্যন্ত ২৭২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় তিনজন ও উপসর্গ নিয়ে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. আবুল ফজল মো. সাহাব উদ্দিন খান নিশ্চিত করেছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকাল ৬ টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় ৭৯১ জনের নমুনা পরীক্ষ করে ২৭২ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। আক্রান্তের হার ৩৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ। জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ৭০৬ জন। জেলায় মোট মৃত্যু ১৬৭ জন। জুলাই মাসের ১ থেকে ১৩ তারিখ পর্যন্ত ১৩ দিনে ২ হাজার ৯৯৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ ছাড়াও ১৩ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫২ জন, উপসর্গ নিয়ে ৫১ জন মোট ১০৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) শফিকুল ইসলাম সজিব বলেন, বর্তমানে হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত ৯০ জন ও উপসর্গ নিয়ে ৪৮ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গতকালের চেয়ে আজ রোগির সংখ্যা বেশি।

টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন আবুল ফজল মো. সাহাবুদ্দিন খান জানান, করোনা প্রতিরোধে সকলকে সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। জ্বর, ঠান্ডা, কাঁশি থাকলে নমুনা দিয়ে ঘর থেকে হওয়া যাবে না। নিজে সচেতন হই, অন্যকে সচেতন করার আহ্বান জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৮ এপ্রিল জেলায় প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। গত জুন থেকে করোনা বাড়তে থাকে। ১২ জুন থেকে আক্রান্তের হার ৩০ শতাংশ ছাড়িয়ে যায়। মাঝে ২৫ ও ২৬ জুন আক্রান্তের হার ২৫ শতাংশের নিচে থাকলেও পরে তা আবার বেড়ে যায়। জুলাই মাসের প্রথম ১২ দিন আক্রান্তের হার ছিলো ৪০ শতাংশের ওপরে। গত দুইদিন আক্রান্তের হার ৩৫ শতাংশের নিচে রয়েছে।

সদর উপজেলা, মির্জাপুর ও কালিহাতীতে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আর সবচেয়ে কম রোগী শনাক্ত হয়েছে বাসাইল উপজেলায়।