অনলাইন ডেস্ক : গত বছরের তুলনায় চলতি বছর (২০২৩ সাল) হজের খরচ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরবের হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়। গত বছরের তুলনায় এবছর ৩০ শতাংশ কমানো হতে পারে এই খরচ।

রোববার (১৫ জানুয়ারি) হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব ডক্টর আমর বিন রেদা আল মাদ্দাহ জানিয়েছেন, এবার করোনা ভাইরাসের কারণে কোনো বাধা ও নিয়ম-কানুন না থাকায় ‘ইকোনোমিক হজ প্যাকেজের’ প্রায় ৯০ ভাগ ইতোমধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে।

সহকারী সচিব আল মাদ্দাহ জানান, সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ যে হজ প্যাকেজগুলো রয়েছে সেগুলো কোম্পানির সেবার মানের ওপর ভিত্তি করে কয়েকটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। হজ ক্যাম্পে সেবার মান দেখে এটি নির্ধারণ করা হবে।

এদিকে হজ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদি আরবের স্থানীয় মুসল্লিরা চাইলে তিন ভাগে হজ প্যাকেজের অর্থ পরিশোধ করতে পারবেন। প্রথমে হজ পালনে আগ্রহীদের নিবন্ধন করতে হবে। এরপর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্যাকেজের ২০ শতাংশ অর্থ পরিশোধ করে নিজের অবস্থান নিশ্চিত করতে হবে। এরপরের ৪০ শতাংশ অর্থ ২৯ জানুয়ারির (৭ রজব) মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। আর শেষ ৪০ শতাংশ অর্থ দেওয়া যাবে এপ্রিলের ২৩ (৩ শাওয়াল) তারিখের মধ্যে। যদিও আগে একসঙ্গে পুরো অর্থ পরিশোধের নিয়ম ছিল।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর ২৫ লাখ মানুষ হজ পালন করে থাকেন। কিন্তু ২০২০ সালে করোনা ভাইরাসের বিধিনিষেধ থাকায় এ সংখ্যা কয়েক হাজারে নেমে আসে। ২০২১ সালে সৌদির ভেতর অবস্থানরত ৬০ হাজার মুসল্লি হজ পালনের সুযোগ পান। ২০২২ সালে বিদেশিসহ ১০ লাখ মানুষ হজ পালন করেছিলেন।