অনলাইন ডেস্ক : গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে শুক্কুর (৩৯) নামে এক আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। সে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার লালনগর গ্রামের খায়ের উদ্দিনের ছেলে। রবিবার দিবাগত রাত ১০টা ১ মিনিটে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামি শুক্কুরের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা ছিল। ওই মামলায় তাকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন কুষ্টিয়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। পরে ২০১৮ সালের ১৬ আগস্ট তাকে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়।

তিনি বলেন, ‘গত ১৯ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টেও তার মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখে। পরে সে মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করেন। কিন্তু প্রাণ ভিক্ষার আবেদন নামঞ্জুর হওয়ায় সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষে জেল কোড অনুসারে রবিবার রাত ১০টা ১ মিনিটে ফাঁসি কার্যকর করা হয়। তার কয়েদি নং ৩৯৮০/এ।

ফাঁসি কার্যকরকালে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুরের সিভিল সার্জন ডা. খায়রুজ্জামান, গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ূন কবির, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি’র) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার রেজওয়ান আহামেদ, গাজীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুর রহমান, জেলার লুৎফর রহমানসহ অন্যান্যরা।

ফাঁসি কার্যকর করার পর স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান জেল সুপার সুব্রত কুমার।