মরণঘাতী করোনাভাইরাসের আঘাতে বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব। ক্রীড়াঙ্গনেও এর প্রভাব পড়েছে বড় আকারে। একের পর এক স্থগিত হয়ে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ইভেন্ট। সে তালিকায় যুক্ত হলো অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফর। করোনার কারণে অজিদের বাংলাদেশ সফর স্থগিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড(বিসিবি) জানিয়েছে, পরিস্থিতি ঠিক হলে দুই বোর্ড মিলে সিরিজটির সময় পুনঃনির্ধারণ করা হবে।

জুনের প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। ১১ জুন চট্টগ্রামে শুরু হওয়ার কথা ছিল দুই টেস্টের প্রথমটি। ঢাকা টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ছিল ১৯ জুন। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবেই টেস্ট দুটি খেলার কথা ছিল দুই দলের। কিন্তু করোনাভাইরাসের সংক্রমণে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে জুনের সিরিজটা স্থগিত করতে বাধ্যই হয়েছে আয়োজক বিসিবি।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী বলেছেন, ‘এটা খেলোয়াড়, সমর্থক ও দুই দলের জন্যই হতাশার। করোনাভাইরাস মহামারি রূপ নেয়ায় এখন যে বৈশ্বিক পরিস্থিতি এবং স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। সেটি বিবেচনায় নিয়ে বিসিবি ও সিএ (ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া) ঐকমতে পৌঁছেছে যে এটাই এখন সবচেয়ে সুবুদ্ধিপূর্ণ ও বাস্তবসম্মত সিদ্ধান্ত। আশাকরি শিগগিরই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। আমরা আরো আশা করি, নিকট ভবিষ্যতে সুবিধাজনক সময়ে সিরিজটা আয়োজন করতে পারবো। অস্ট্রেলিয়া বোর্ড আগেও আমাদের সহযোগিতা করেছে। ভবিষ্যতেও সিএর সঙ্গে কাজ করে যাবে বিসিবি’।

সিরিজ স্থগিত হওয়া নিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী কেভিন রবার্টস বলেছেন, ‘আমরা জানি বৈশ্বিক ক্রিকেটের ক্যালেন্ডারটা খুব ব্যস্ত। আমরা সবই করার চেষ্টা করব যাতে বাংলাদেশকে দেয়া প্রতিশ্রুতিকে সম্মান জানানো হয়। আলোচনার ভিত্তিতে একটি তারিখ ঠিক করে সে অনুযায়ী কাজ করব’।