নেত্রকোনা সংবাদদাতা : নেত্রকোনার দুর্গাপুরে সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সুবজা খাতুন (১৯) নামের এক তরুণীর আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার দুপরে দুর্গাপুর থানার পুলিশ উপজেলার পৌরসভার দক্ষিণ পাড়ায় সুসং আশ্রয়ণের নিজ ঘর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। সবুজা আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৪/৪ নং ঘরের মঞ্জু ইসলামের মেয়ে। এই ঘটনার পরপরই পাশ্ববর্তী ৪/২ নং ঘরের প্রেমিক বাবুর পরিবারের লোকজন পালিয়েছে।

পুলিশ স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সবুজাদের পাশ্ববর্তী ৪/২ নং ঘরের আব্দুল আলীর ছেলে বাবুর সঙ্গে সবুজার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত তিন থেকে চারদিন আগে তাদের দুজনকে এক ঘরে একত্রে দেখে বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে মীমাংসার মাধ্যমে দুইজনের বিয়ের আশ্বাস দেয় ছেলের পরিবার। এরপর তারা ছেলেকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেয়।

এদিকে, প্রেমিককে না দেখে সবুজা আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। এই ঘটনা ঘটার পরপরই ছেলের পরিবারের লোকজন পালিয়েছে বলেও জানান সবুজার স্বজনরা।

দুর্গাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম জানান, নিহতের নিজ বসত ঘরের পাশের একটি বসত ঘরের ভেতরে বাঁশের সঙ্গে ওড়না পেঁচানো ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করি আমরা। পরে সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।