জামালপুর সংবাদদাতা : জেলার সরিষাবাড়ীতে নিখোঁজ হওয়ার চারদিন পর সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে উজ্জ্বল মিয়া (১৪) নামের এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজনে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যায় সরিষাবাড়ী উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের চরবালিয়া পূর্বপাড়ায় নিজ বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত উজ্জ্বল মিয়া সরিষাবাড়ী উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের চরবালিয়া পূর্বপাড়ার অসর আলীর ছেলে। তিনি খলিলুর রহমান ভোকেশনাল ইনস্টিটিউটের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিলেন। আটকরা হলেন- আবু সাইদ ও সাদ্দাম।

পুলিশ জানায়, বুধবার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যায় বাড়ী থেকে কয়েকজন বন্ধু ডেকে নেওয়ার পর থেকেই নিখোঁজ থাকে উজ্জ্বল। পরে ওইদিন রাতেই পরিবারের লোকজন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি উজ্জলের। রোববার দুপুরে বাড়ির আঙ্গিনায় কাজ করার সময় পাশে থাকা সেপটিক ট্যাংক থেকে দুর্গন্ধ গন্ধ পান তার স্বজনরা। পরে ট্যাংকির মুখ খুলে উজ্জলের মরদেহ দেখতে পায় তার পরিবারের লোকজন। পুলিশে খবর দিলে ঘটনাস্থলে এসে সন্ধ্যায় মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

জামালপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহরাব হোসাইন বলেন, গত ২৭ মার্চ আমাদের কাছে একটি অভিযোগ এসেছিল। অভিযোগের পরেই আমরা অনুসন্ধান শুরু করেছিলাম। নিহতের স্বজনদের কাছে ইমোতে মুক্তিপণ চেয়ে কল দেওয়া হয়। আমরা নম্বর ট্রেকিং করেছিলাম। তবে নম্বরটি বন্ধ ছিল। আজ হঠাৎ সংবাদ পেলাম মরদেহের সন্ধান মিলেছে। এরপরেই আমরা দুইজনকে আটক করি। বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।

এ ব্যাপারে একটি মামলা দায়েরও প্রস্তুতি চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুরে জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।