ভালুকা প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ভালুকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটের অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় দুইজন আহত হয়েছেন।

আহতের মাঝে একজনকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। উপজেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক সাবেক মেম্বার উপজেলার ডাকাতিয়া দক্ষিণপাড়ার নুরুল ইসলামের বাড়িতে বুধবার (১৭ এপ্রিল) বেলা ১২টার দিকে ওই হামলার ঘটনাটি ঘটে। ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ওই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ডাকাতিয়া শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার শেষ দিন গত মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) রাতে মেলামঞ্চে উঠা নিয়ে দুই পক্ষের মাঝে কথা কাটাকাটি থেকে মারামারির ঘটনা ঘটে।

এ সময় ডাকাতিয়া দক্ষিণ পাড়ার নুরুজ্জামানের ছেলে বিশ্ববিদ্যাল ছাত্র মোহাম্মদ নাহিদের (২৫) উপর হামলা করা হয়। ওই ঘটনার জের ধরে ২০-২৫টি মোটরসাইকেলে করে আসা একদল যুবক ও কিশোর উপজেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক সাবেক মেম্বার নুরুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালায়। ওই সময় হামলাকারীরা নুরুল ইসলামের দুই ভাই নুরুজ্জামান ও কামরুজ্জামানের বসতঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে নগদ টাকা লুটে নেয় যায়। এর আগে তারা স্থানীয় ডাকাতিয়া বাজারে অবস্থানরত মৃত লাল মিয়ার ছেলে কলেজ পড়ুয়া ছাত্র মেহেদী হাসান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হকের উপর হামলা চালায়।

সাবেক মেম্বার নুরুল ইসলাম জানান, গত মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) রাতে বৈশাখী মেলার মঞ্চের ঘটনার জের ধরে তার দুই ভাইয়ের বসতঘরে হামালা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়েছে। এর আগে হামলাকারীরা মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হক ও মেহেদী হাসানকে মারধর করে।

মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হক জানান, মেহেদী হাসানকে মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তিনিও কিল ঘুষির শিকার হন।

ক্ষতিগ্রস্ত নুরুজ্জামানের দাবি হামলাকারীরা তাদের বসতঘরে ভাঙচুর চালায়। এ সময় লুটপাটসহ তাদের প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ওই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ জানান, ৯৯৯-এ কল পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।