ডেস্ক রিপোর্ট : দেশের ৬৪ জেলার শ্রেণি বিভাগে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’তে রয়েছে শিক্ষানগরী ময়মনসিংহ জেলা। অবস্থানগত কারণে বেশি গুরুত্ববহ হওয়ায় এ জেলাকে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’র অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

নতুন নতুন উপজেলা সৃষ্টি হওয়ায় দেশের অনেক জেলার ক্যাটাগরিতে পরিবর্তন ঘটেছে। এ কারণে সরকার পুনরায় দেশের ৬৪ জেলার শ্রেণিবিন্যাস করেছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ হালনাগাদ করা ৬৪ জেলার শ্রেণিবিন্যাস করে সম্প্রতি পরিপত্র জারি করেছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পরিপত্র সূত্রে জানা গেছে, ৮ বা এর বেশি উপজেলা নিয়ে গঠিত জেলাকে ‘এ’, ৫ থেকে ৭টি উপজেলা নিয়ে গঠিত জেলাকে ‘বি’ এবং পাঁচটির কম উপজেলা নিয়ে গঠিত জেলাকে ‘সি’ শ্রেণির জেলার মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। অবস্থানগত কারণে বেশি গুরুত্বপূর্ণ জেলাকে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’র অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।বিশেষ ক্যাটাগরি’র হচ্ছে, ময়মনসিংহ, খুলনা, ঢাকা, গাজীপুর, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী।

সোমবার ৬৪ জেলার শ্রেণি বিভাগ হালনাগাদ করে পরিপত্র জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সেই হিসেবে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’তে ছয়টি, ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ২৬টি, ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ২৬টি এবং ‘সি’ ক্যাটাগরিতে ছয়টি জেলা পড়েছে।

ময়মনসিংহ বিভাগের ময়মনসিংহ জেলার অধীন ১৩টি উপজেলা নিয়ে গঠিত ময়মনসিংহ জেলা বিশেষ ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত। এ বিভাগের নেত্রকোনা ‘এ’ শ্রেণি ও বি শ্রেণির জেলা হচ্ছে জামালপুর ও শেরপুর।

ঢাকা বিভাগের ‘এ‘ শ্রেণির জেলা হচ্ছে কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও ফরিদপুর। মানিকগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, নরসিংদী, শরীয়তপুর, গোপালগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ ও রাজবাড়ী ‘বি’ শ্রেণির জেলা, এবং ‘সি’ শ্রেণিতে রয়েছে মাদারীপুর জেলা।

চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম বিশেষ ক্যাটাগরির জেলা। চট্টগ্রামের কুমিল্লা, রাঙ্গামাটি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, খাগড়াছড়ি, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কক্সবাজার ‘এ’ শ্রেণির এবং বান্দরবান, ফেনী ও লক্ষ্মীপুর ‘বি’ শ্রেণির জেলা। এই বিভাগে ‘সি’ শ্রেণির জেলা নেই।

রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী বিশেষ ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত জেলা। এছাড়া বগুড়া, নওগাঁ, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ ‘এ’ শ্রেণি, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও জয়পুরহাট হচ্ছে ‘বি’ শ্রেণির জেলা। এই বিভাগেও সি শ্রেণির জেলা নেই।

রংপুর বিভাগে ‘এ’ শ্রেণির জেলা হচ্ছে দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম ও রংপুর। ‘বি’ শ্রেণিতে রয়েছে গাইবান্ধা, নীলফামারী, লালমনিরহাট, পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও। এ বিভাগেও ‘সি’ শ্রেণির জেলা নাই।

খুলনা বিভাগের খুলনা বিশেষ ক্যাটাগরির জেলা। এ বিভাগে ‘এ’ শ্রেণির জেলা হচ্ছে বাগেরহাট ও যশোর। ‘বি’ ক্যাটাগরিতে রয়েছে সাতক্ষীরা, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া ও চুয়াডাঙ্গা জেলা। এই বিভাগে ‘সি’ ক্যাটাগরিতে রয়েছে মাগুরা, মেহেরপুর ও নড়াইল জেলা।

বরিশাল বিভাগের ‘এ’ শ্রেণির জেলা হচ্ছে বরিশাল ও পটুয়াখালী। এই বিভাগের ভোলা, পিরোজপুর ও বরগুনা ‘বি’ ক্যাটাগরি এবং ঝালকাঠি ‘সি’ ক্যাটাগরির জেলা।

সিলেট বিভাগের অধীন সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার এই চারটি জেলাই ‘এ’ শ্রেণির।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্র জানায়, শ্রেণি অনুযায়ী সরকার জেলার সরকারি দফতরগুলোতে জনবল নিয়োগ, উন্নয়ন পরিকল্পনা ও ত্রাণ বরাদ্দও করে। নতুন কিছু উপজেলা সৃষ্টি হওয়ায় অনেক জেলারই শ্রেণি পরিবর্তন হওয়ায় সেগুলোকে একত্রিত করে নতুন শ্রেণিবিন্যাস করা হয়েছে। আগে জেলার শ্রেণি এক জায়গায় ছিল না, পরিপত্রের মাধ্যমে সেগুলোকে একত্রিত করা হয়েছে।