সমীর রায়,কোটালীপাড়া ( গোপালগঞ্জ) সংবাদদাতা : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায তারাশি গ্রামে রাতের অন্ধকারে যুবতি ও মহিলাদের মুর্তিমান আতঙ্ক গ্রাম পুলিশ সেলীম সিকদার।

তার ভয়ে ওই গ্রামের যুবতি ও মহিলারা রাতের অন্ধকারে ঘর থেকে বাহির হতে পারছেনা।গ্রাম পুলিশ সেলীম সিকদারের অসামাজিক কার্যকলাপে তারা ভীত আর উৎকন্ঠায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। এব্যপারে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার অফিসার ইনচার্জের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

রবিবার সকালে সরেজমিনে কোটালীপাড়া পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের তারাশি মন্ডল পাড়া গ্রামে গিয়ে জানাযায়, উপজেলার হিরন ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ সেলীম সিকদার প্রতিদিন গভীর রাতে পৌর সভার তারাশি মন্ডল পাড়ায় অসৎ উদ্দেশ্যে ঘুরতে থাকেন। সে বিভিন্ন ঘরের পিছনে ওৎপেতে বসে থাকে।প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে কোন যুবতি মহিলারা ঘরের বাহির হইলে গ্রাম পুলিশ সেলীম সিকদার তাদেরকে ঝাপটে ধরে শ্লীনতাহানির চেস্টা চালায। নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক কয়েকজন গৃহবধু জানান চৌকিদার সেলীম সিকদার প্রতিদিন রাতে আমাদের গ্রমে ডুকে ঘরের চর্তুপাশ দিয়ে ঘুরতে থাকে, রাতে প্রকৃতির ডাকে আমরা বাহিরে এলেই সে আমাদের ইজ্জত ছিনিয়ে নেওয়ার চেস্টা করে। তাকে এভাবে রাতের বেলায় ঘোরাঘুরি করা থেকে বিরত থাকতে বলা হলেও সে আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে ঘরের ভিতরে টর্চলাইটের আলো দিয়ে স্বামী স্ত্রীর শয়ন কক্ষের দৃশ্য দেখে। এতদিন লোকলজ্জার ভয়ে কারো কাছে প্রকাশ করতে পারিনি।

গত ৯ আগষ্ট চানক্য মজুমদারের ঘরের জানালা দিয়ে হাত ডুকানোর সময় বাড়ির লোকজন তাকে ধাওয়া করলে সে দ্রুত পালিয়ে যায়।এঘটনার পর চানক্য মজুমদার বাদি হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তারাশি মন্ডল পাড়া গ্রামের চানক্য মন্ডল,সতিশ মন্ডল,সান্তিরঞ্জন মন্ডল,গোপাল পান্ডে,জহিরুল ইসলাম,মামুন শেখ ও আবুল কালাম সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন সেলীম সিকদার হিরন ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের চৌকিদার কিন্তু সে পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডে প্রবেশ করে প্রতিদিন গভীর রাতে প্রতিটি ঘরের মধ্যে টর্চলাইট মেরে স্বামী স্ত্রীর শয়ন কক্ষের দৃশ্য ধারণ করে ঘরের জানালা দিয়ে উকি মেরে হাত ডুকিয়ে যৌন হয়রানীর চেস্টা করে এবং প্রতিটি ঘরের পিছনে ওৎপেতে থাকে যার ফলে যুবতি মহিলা ও আমাদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এ ব্যপারে সেলীম চৌকিদারের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।

হিরন ইউপি চেয়ারম্যাম গোলাম কিবরিয়া দাড়িয়া বলেন, সেলীম আমার ইউনিয়নের চৌকিদার তার পৌরসভায় রাতের বেলায় ঘোরাঘুরি ঠিক হয়না,তার অশালিন আচরণের বিরুদ্ধে এলাকাবাসি আমার কাছে অভিযোগ করেছে,আমি বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন সেলীম চৌকিদারের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্হা নিব।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন এ ধরনের অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে।