কৃষিবিদ দীনমোহাম্মদ দীনু, অতিথি প্রতিবেদক : কৃষিতে নভেল বেসিলাস এর ব্যবহার এবং প্রয়োগে কৃষির সাফল্য ত্তথা বেগুনের ঢলে পড়া রোগ দমনে রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের পাহাড়তলীর কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে জাতীয় পর্যায়ের এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম হারুনর রশীদের সভাপতিত্বে এবং বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. কামরুল হাসান চৌধুরী উপস্থাপনায় প্রধান অতিথি হিসেবে সেমিনারের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মো. মঞ্জুরুল হুদা।

সেমিনারে প্রধান গবেষক ড. মো. তোফাজ্জল হোসেন রনি মুল প্রবন্ধ তুলে ধরেন।

অনলইন আলোচনায় অংশ নেন মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. খলিলুর রহমান ভুইয়া, মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম হারুনর রশীদ, ড. মোহাম্মদ আমীন, উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো.জামাল উদ্দিন, বাকৃবির জনসংযোগ ও প্রকাশনা দফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ দীন মোহাম্মাদ দীনু প্রমুখ।

বায়োসেন্টার বাস্তবায়ন এর মাধ্যমে আমাদের দেশে ব্যাপক আকারে এই নয়া প্রযুক্তি কৃষকের কাছে পোছানো সম্ভব বলে আলোচনায় উঠে আসে।

বক্তারা বলেন, নভেল বেসিলাস এর প্রয়োগ একটি নতুন বিষয় যার উপর আরো জোড়াল গবেষণা করতে হবে। সারাদেশ ব্যাপী পরিবেশ বান্ধব নভেল বেসিলাস কৃষকের কাছে সহজ ভাবে পৌছে দিতে হবে। আমাদের দেশে কোন ভড়ৎসঁষধঃরড়হ ঢ়ৎড়ফঁপঃ নেই। বড় আকারে বায়ো সেন্টার করে এ ধরনের কাজ বাড়িয়ে দিতে হবে।

প্রধান অতিথি বলেন, নভেল বেসিলাস এর প্রয়োগ একটি নতুন বিষয় যার উপর আরো জোড়ালো গবেষণা করতে হবে। সারাদেশব্যাপী পরিবেশ বান্ধব নভেল বেসিলাস কৃষকের কাছে সহজ ভাবে পৌছে দিতে হবে। অঞ্চল ভিত্তিক গবেষণার ফলাফল ও মুল্যায়ন করতে হবে। বক্তারা আরো জানান প্রতিবেশি বহু দেশেই আজ বায়োফার্মান্টারের মাধ্যমে এই কাজ চলছে, আমাদের দেশে তা এখনও গড়ে ওঠেনি। সুতরাং কৃষিবিদদের এখনি ভাবতে হবে।